নারীদের যারা অপরাধে ব্যবহার করছে, তাদের চিহ্নিত করার দাবি জানিয়েছে মহিলা পরিষদ

Posted on by

মোঃ অহিদুজ্জামান : র‌্যাবের সাম্প্রতিক অভিযানে গ্রেফতার পরীমণিসহ অভিনেত্রী-মডেলদের নিয়ে কোনো কোনো সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত ও প্রচারিত প্রতিবেদনে নারীর মর্যাদাক্ষুণ্ণ হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে মহিলা পরিষদ। এ নিয়ে উদ্বেগ এবং ক্ষোভ প্রকাশ করে গতকাল রোববার বিবৃতি দিয়েছেন নারী সংগঠনটির সভাপতি ফওজিয়া মোসলেম ও সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু।

মহিলা পরিষদের বিবৃতিতে বলা হয়, সাম্প্রতিক সময়ে আমরা লক্ষ্য করছি যে, কোনো নারী ঘটনার শিকার বা অভিযুক্ত যাই হোক না কেন, এমনভাবে সংবাদ প্রচার ও শব্দ প্রয়োগ করা হয়, যাতে নারীর আত্মমর্যাদা ক্ষুণ্ণ হয়। এই ঘটনাসমূহ নারীর প্রতি পুরুষতান্ত্রিক দৃষ্টিভঙ্গির প্রকাশ। যখন গণমাধ্যমকে জেন্ডার সংবেদনশীল করতে নারী আন্দোলন বিশেষ ভূমিকা রাখছে, গণমাধ্যমও নারীর মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় বিভিন্ন সময়ে সহযোগী ভূমিকা রেখে চলেছে; সেইসময় দুর্ভাগ্যজনকভাবে কোনো কোনো গণমাধ্যমের ভূমিকা নারীর মানবাধিকারকে ক্ষুণ্ণ করছে।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, আমরা লক্ষ্য করলাম এই ক্ষেত্রেও সংবাদ উপস্থাপন ও শব্দ প্রয়োগের মাধ্যমে পাঠক-দর্শকের মনোযোগ আকর্ষণ করার অপপ্রয়াস চালানো হচ্ছে, যা সুস্থ সাংবাদিকতার পরিপন্থী। ব্যক্তি নারীর মর্যাদা ক্ষুণ্ণ করে ও মানবাধিকার লঙ্ঘন করে, এমন কোনো ধরনের সংবাদ পরিবেশন থেকে বিরত থাকার আহবান জানিয়েছেন মহিলা পরিষদ নেতারা। এক্ষেত্রে বিচারের আগেই দোষি করে দেওয়ার প্রবণতাও দেখা যাচ্ছে, যা প্রত্যাশিত নয়।

নারীদের যারা অপরাধে ব্যবহার করছে, তাদের চিহ্নিত করার দাবি জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, অপরাধের মূল কারিগরদের চিহ্নিত করে বিচারের আওতায় না আনায় নারী ও কন্যাদের ব্যবহার করা অব্যাহত রয়েছে। বর্তমানে এই প্রবণতা যে নিষ্ঠুর ও ভয়ঙ্কর রূপ নিয়েছে এই ঘটনাগুলো তারই প্রতিফলন।
মহিলা পরিষদ মনে করে, এই সকল ঘটনার হোতাদের চিহ্নিত করে শাস্তির ব্যবস্থা না করলে এর পুনরাবৃত্তি ঘটতে থাকবে।

More News from বাংলাদেশ

More News

Developed by: TechLoge

x