করোনায় মৃত বিদেশী স্বাস্থ্যকর্মীদের পরিবারের সদস্যদের স্থায়ী বসবাসের অনুমতি দেবে ব্রিটিশ সরকার

Posted on by

ব্রিটেনে করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সেবা করতে গিয়ে করোনায় সংক্রমিত হয়ে মৃত্যুবরণকারী বিদেশী ডাক্তার ও কেয়ার ওয়ার্কারদের পরিবারের সদস্য বা তাদের উপর নির্ভরশীল ব্যক্তিদের সেদেশে স্থায়ী বসবাসের অনুমতি সরকার।

এ পর্যন্ত অর্ধ শতাধিক বিদেশী ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের (এনএইচএস) স্টাফ ও কেয়ার ওয়ার্কার মারা গেছে ব্রিটেনে করোনা রোগীদের সেবা দিতে গিয়ে। আর ওই স্টাফদের ছিলো না ব্রিটেনে স্থায়ী বাসের অনুমতি। মারা যাওয়া ওই কর্মীদের পরিবারের সদস্য বা তাদের উপর নির্ভরশীল ব্যক্তিদের ব্রিটেনে বিনা খরচে ইন্ডেফিনিট লিভ টু রিমেইন (স্থায়ী বাস ) দেবার প্রস্তাব দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এই প্রস্তাব তাৎক্ষণিকভাবে কার্যকর হবে বলেও হোম অফিসের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল বলেছেন, “প্রত্যেক মৃত্যুই মর্মান্তিক। করোনার ভয়াবহতা থেকে অন্যদের জীবন রক্ষা করতে এনএইচএস স্টাফ এবং কেয়ার ওয়ার্কাদেরও মর্মান্তিকভাবে মৃত্যুবরণ করতে হয়েছে। তাদের ত্যাগ অবশ্যই স্মরণীয় হয়ে থাকবে।”

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, “গত এপ্রিলে বিদেশী এনএইচএস স্টাফ এবং কেয়ারওয়ার্কারদের বিশেষ সুযোগ দিয়ে দ্যা বির‌্যাভমেন্ট স্কীমের ঘোষণা দিয়েছিলাম। তখনি বলেছিলাম তাদের জন্যে আরো কিছু করা যায় কি না, তা ভেবে দেখা হচ্ছে। আজকের ইন্ডেফিনিট লিভ টু রিমেইন প্রস্তাব সেই স্কিমেরই অংশ।”করোনায় মৃত্যুবরণকারী বিদেশী এনএইচএস স্টাফ এবং কেয়ারওয়ার্কাদের পরিবারের সদস্য এবং তাদের উপর নির্ভরশীলদের জন্যে এই প্রস্তাব তাৎক্ষণিকভাবে কার্যকরের নিশ্চিয়তাও দেন তিনি।

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসে ব্রিটেনে বুধবার পর্যন্ত সরকারি হিসেব মতে ৩৫ হাজার ৫৭৬ জন মানুষ মৃত্যুবরণ করেন। এরমধ্যে সোমবার চব্বিশ ঘন্টায় মারা যান ২শ ৩৫ জন। এদিকে করোনা রোগিদের সেবা করতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে অন্তত ১৮১ জন এনএইচএস স্টাফ এবং কেয়ার ওয়ার্কারের মৃত্যু হয়েছে ব্রিটেনে।

Leave a Reply

More News from আন্তর্জাতিক

More News

Developed by: TechLoge

x