এরশাদ কারাগারে থাকতে সরকারি হস্তক্ষেপ দেখেছি: কাদের

Posted on by

‘আমাদের দলের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এরশাদ সাহেব যখন কারাগারে ছিলেন, বিভিন্নভাবে সরকারি হস্তক্ষেপটা আমরাও লক্ষ করেছি। তবে স্বাভাবিক নিয়মে বিচারব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ হোক, এটি প্রত্যাশা করি।’কথাগুলো বলেছেন জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত এইচ এম এরশাদের ছোট ভাই এবং পার্টির বর্তমান চেয়ারম্যান জি এম কাদের। বিএনপির কারাবন্দী চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির ব্যাপারে এক প্রশ্নের জবাবে কথাগুলো বলেন কাদের। তিনি আজ শনিবার দুপুরে রংপুর নগরের মুন্সিপাড়া কবরস্থানে তাঁর মা–বাবার কবর জিয়ারত করেন। এরপর সেখানে উপস্থিত সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।জি এম কাদের বলেন, বিএনপি এখন নেতৃত্বশূন্য। তাদের একজন জেলে, আরেকজন বিদেশে। তাদের কোনো সাংগঠনিক ভিত্তি নেই। বিপরীতে জাতীয় পার্টি একটি শক্তিশালী সাংগঠনিক দল। এই শক্তি আরও বাড়াতে হবে। দলের নেতা–কর্মীরা যে যেখানে আছেন, সেখান থেকেই দলের জন্য কাজ করতে হবে।

কাদের বলেন, জাতীয় পার্টির সূতিকাগার রংপুর। রংপুরের নেতা–কর্মীদের প্রতিটি কর্মকাণ্ডের প্রতিফলন হয় পুরো দেশের জাতীয় পার্টিতে। এ জন্য রংপুরের জাতীয় পার্টিও নেতা–কর্মীদের আরও দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে দলে।করোনাভাইরাস প্রসঙ্গে জি এম কাদের বলেন, ‘চীন থেকে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস বাংলাদেশের জন্য তেমন বিপজ্জনক নয়। তবে সারা বিশ্বে করোনাভাইরাস খুব দ্রুত ছড়াচ্ছে। মানুষও মারা যাচ্ছে। আমি মনে করি, এই ভাইরাস আমাদের দেশের জন্য তেমন বিপজ্জনক নয়। তারপরও আমাদের সতর্ক ও সচেতন হওয়া উচিত।’করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করে জাপা চেয়ারম্যান বলেন, ‘সরকার সব ধরনের ব্যবস্থা নিচ্ছে। সব হসপিটালে আলাদা ইউনিট খোলা হয়েছে। আমাদের দেশে রোগটি আসার আগেই মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি হয়েছে।’কবর জিয়ারতের সময় জি এম কাদেরের সঙ্গে ছিলেন রংপুর মহানগর জাপার সভাপতি ও সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান, সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসির, জেলা জাপার সহসভাপতি আজমল হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রাজ্জাক প্রমুখ।

More News from বাংলাদেশ

More News

Developed by: TechLoge

x