পাপিয়া ও পিরোজপুরের আদালতকাণ্ডে সরকার বিব্রত নয়

Posted on by

পিরোজপুরের জেলা দায়রা জজকে বদলির ঘটনা এবং বহিষ্কৃত যুব মহিলা লীগ নেত্রী পাপিয়ার কর্মকাণ্ডে সরকার বিব্রত নয় বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।তিনি বলেছেন,বিচার বিভাগ সম্পূর্ণ স্বাধীন। বিচারক বদলির বিষয়টি সম্পূর্ণ বিচার বিভাগ ও আইন মন্ত্রণালয়ের বিষয়।সেখানে যদি কোনও ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়,সেটার সমাধান তারাই করবেন।’বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।এর আগে,মুজিববর্ষ উপলক্ষে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেন দলের সাধারণ সম্পাদক।পিরোজপুরে বিচারক বদলির ঘটনায় আওয়ামী লীগ বিব্রত নয় জানিয়ে তিনি আরও বলেন,আমরা আইনের শাসনে এবং বিচার বিভাগের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি।এই বিষয়ে দলীয়ভাবে মন্তব্য করবো না।বিষয়টি আমরা গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছি।পর্যবেক্ষণে কোনও বিচ্যুতি দেখলে দলীয়ভাবে ব্যবস্থা নেবো।বিএনপির সমালোচনা করে তিনি বলেন,বিএনপি ইস্যু খোঁজার চেষ্টা করছে।এ বিষয়ে আমাদের কিছুই করার নেই।এটা সম্পূর্ণভাবে আইন ও বিচার বিভাগের বিষয়।’

বহিষ্কৃত যুব মহিলা লীগের নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়ার অপরাধের সঙ্গে আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতার নাম আসার বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ওবায়দুল কাদের বলেন,আমরা বিব্রত হই না,আমরা ব্যবস্থা নেই।অপরাধীরা নজরদারিতে রয়েছে।অপরাধী যেই হোক না কেন,শেখ হাসিনা কাউকে ছাড় দেন না;তার প্রমাণ তিনি বারবার দিয়েছেন।আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা এবিষয়ে কঠোর অবস্থানে রয়েছেন।আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন,জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যার মাস্টারমাইন্ড হিসেবে ৭৫-এ ভূমিকা রেখেছিল বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান,এখন তার দল বিএনপি বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর আয়োজনের বিরোধিতা করছে।তারা বিরোধিতার জন্য বিরোধিতা করছে।তারা বঙ্গবন্ধু হত্যার মাস্টারমাইন্ড,অতীতেও অপচেষ্টা চালিয়েছে।কিন্তু শত চেষ্টা করেও বঙ্গবন্ধুর ঔজ্জ্বল্য ঢেকে দিতে পারেনি।এসময় ঢাকা-১০ সংসদীয় আসনে উপনির্বাচনের সমন্বয়ক হিসেবে দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুর রহমান এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনের সমন্বয়ক হিসেবে দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের নাম ঘোষণা করা হয়।ব্রিফিংয়ে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম,সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুর রহমান,জাহাঙ্গীর কবির নানক,সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া,ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহাম্মদ মন্নাফি প্রমুখ।

More News from বাংলাদেশ

More News

Developed by: TechLoge

x