আমি কি চোর,প্রশ্ন মাশরাফির

Posted on by

বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্তুজার পারফরম্যান্স নিয়ে কখনোই তেমন কথা উঠেনি। কিন্তু গেল বিশ্বকাপে ৮ ম্যাচে মাত্র ১ উইকেট শিকারের বাজে পারফরম্যান্সই তাকে সমালোচনার শূলে চড়াচ্ছে। তবে মাঠে এমন বাজে পারফরম্যান্স প্রায় সব ক্রিকেটারের জীবনেই আসতে পারে। এতে লজ্জায় কুঁকড়ে যেতে হবে বা আত্মসম্মানবোধ উড়ে যাবে-এমন বালখিল্য চিন্তার সঙ্গে মোটেও একমত নন মাশরাফি বিন মর্তুজা।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্তুজাকে ‍শুনতে হয়েছে তীর্যক সব প্রশ্ন। সংবাদ সম্মেলনে ধেয়ে আসতে থাকে অবসর ভাবনা নিয়ে বিভিন্ন জিজ্ঞাসা। এক পর্যায়ে আবেগতাড়িত হয়ে মাশরাফী এসব কথা বলেন।ওয়ানডেতে বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক মাশরাফী। বিশ্বকাপে দলকে সবশেষ নেতৃত্ব দিয়েছেন। সাত মাস পর রোববার মাঠে নামবেন টাইগার মহাতারকা। সিরিজ ছাপিয়ে কেবলই আলোচনায় মাশরাফীর অবসর। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়ে দিয়েছেন, তিন ম্যাচের সিরিজ শেষে বোর্ড সভায় নতুন করে অধিনায়ক নির্বাচন করবেন তারা। সেখানে যদি নতুন কাউকে দায়িত্ব দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়, তাহলে এই সিরিজটিই অধিনায়ক হিসেবে মাশরাফীর শেষ।প্রশ্নকর্তা মাশরাফীর কাছে জানতে চেয়েছিলেন, কঠিন সময়ে সহজ প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ের সঙ্গে দারুণ খেলে নিজেকে আবার আগের জায়গায় নিয়ে গিয়ে হারানো আত্মসম্মান ফিরিয়ে আনা, লজ্জা মোচনের দিকে সচেষ্ট হবেন কিনা। আত্মসম্মান ও লজ্জা, এ দুটি শব্দেই আপত্তি মাশরাফীর।

‘আত্মসম্মান বা লজ্জা, আমি কি চুরি করি মাঠে, আমি কি চোর? খেলার সাথে আত্মসম্মান, লজ্জা, আমি মেলাতে পারি না। এত জায়গায় এত চুরি হচ্ছে, এত চামারি হচ্ছে, তাদের কি লজ্জা নেই? আমি মাঠে এসে উইকেট না পেলে আমার লজ্জা লাগবে? আমি কি চোর?’উইকেট আমি না-ই পেতে পারি। সমালোচনা আপনারা করবেন, ভক্তরা করবেই। লজ্জা পেতে হবে কেনো, আমি কি বাংলাদেশের হয়ে ক্রিকেট খেলছি নাকি অন্য কোনো দেশের হয়ে খেলছি যে আমার লজ্জা পেতে হবে। আমি পারিনি আমাকে বাদ দিয়ে দেবে। ব্যাপারটা তো সিম্পল। এখন কথা হচ্ছে, আমার লজ্জা আত্মসম্মানবোধ কার সঙ্গে দেখাতে যাব। আমি তো বাংলাদেশের হয়ে খেলতে নামছি। আমি কি বাংলাদেশের বিপক্ষের মানুষ?’

‘যেকেউই পারফর্ম নাই করতে পারে। যদি কোনো খেলোয়াড়ের প্রচেষ্টা না থাকে, শৃঙ্খল না সেগুলো নিয়ে প্রশ্ন আসতেই পারে। আরেক ধরনের সমালোচনা হতে পারে যেটা কমন, সারাবিশ্বেই হয়ে থাকে, উইকেট পাইনি সমালোচনা হবেই। কথাটা যখন লজ্জা, আত্মসম্মানবোধের কথা চলে আসে, তখন আমার প্রশ্ন জাগে। সমালোচনা করুক, সেটা ঠিক আছে। আত্মসম্মান বিসর্জন দিতে ক্রিকেট খেলায় আসছি নাকি। আমি কি অন্য দেশের হয়ে খেলতে নামছি। নাকি আমি চুরি করছি, চামারি করছি, তা তো না। এই বিষয়টার সঙ্গে আমি একমত না।’ অভিমান নিয়ে বলে যান মাশরাফী।বিশ্বকাপে বল হাতে ভালো করতে পারেননি মাশরাফী। তখন থেকেই এ পেসারকে ঘিরে চলছে নানা আলোচনা। সম্প্রতি ওয়ানডে অধিনায়ক ঠিক করা নিয়ে আলোচনায় বসা বিসিবি সভাপতির মন্তব্যের পর পেয়েছে বাড়তি মাত্রা। মাশরাফী আগেই স্পষ্ট করেছেন তিনি আরও খেলতে চান। রাখা হবে না কিনা সেটি বিসিবির সিদ্ধান্ত। নিজের অবস্থান পরিষ্কার করার পরও কেনো এত আলোচনা সেটি নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন অধিনায়ক। জানিয়েছেন অবসর নিয়ে কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারলে নিজ থেকেই জানাবেন সবাইকে।

Developed by: TechLoge

x