সীমাহীন কল্পনা করেছি : হাজারের মধ্যে একটা হলেও বাস্তবে রূপ নিয়েছে :এটাই আমার সার্থকতা

Posted on by

আমেরিকা প্রবাসী আম্বিয়া বেগমের ফেইসবুক থেকে সংগৃহিত 

সামাজিক জীব হিসেবে মানুষকে সমাজের অনেক রীতিনীতি ও দায়িত্ব পালন করতে হয়। তাই আমি সর্বস্তরের মানুষজনের সঙ্গে পরিচিত হই। এই মাধ্যমে সামাজিকভাবে ব্যক্তিত্বের বহির্প্রকাশ ঘটে। সামাজিকতা পালন না করে নিজেকে গুটিয়ে রাখলে কখনই কারও ব্যক্তিত্ব প্রকাশ পায় না। অপরিচিত মানুষকে জানার সুযোগ মানেই নতুন কিছু জানি। সকল পরিস্থিতিতেই আমি ইতিবাচক চিন্তা করি, তাই কঠিন কিংবা দুঃসাধ্য কাজেও সফলতা পেয়েছি।


২০০৭ সালে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল, আত্মীয় স্বজন থেকে শুরু করে কাছের মানুষ গুলো দূরে সরে গেল। কঠিন কঠিন বিপদগুলো কত ভয়াবহ তা আর মনে করতে চাইনা। আত্মবিশ্বাস আমাকে শক্তি যুগিয়েছিল। বিপন্ন সময়ে কিছু মানুষ পাশে এসে অনুপ্রেরণা দিয়েছিলেন বটগাছের ছায়া হয়ে। তাঁদের জন্য কৃতজ্ঞার ভাষা আমার জানা নেই। ইদানীং অনেক ভদ্র মহিলারা ফোন করেন তাদের সমস্যার কথাগুলো বলেন তখন আমি তাদের সাহসী হতে বলি। তাদের সমস্যার শেষ নেই ।নেতিবাচক চিন্তার মানুষ সারাক্ষণই হতাশা, দুঃখ ও বিষন্নতায় ভোগে যা ব্যক্তিত্বকে বেশি মাত্রায় ক্ষুন্ন করে। তাই সকল পরিস্থিতিতেই ইতিবাচক চিন্তা করুন। ব্যবসার সুবাদে ভালো-মন্দ সব মানুষের সাথে মিশেছি, ব্যবসায়ী, ব্যাংকার, উকিল, পুলিশ, চাঁদাবাজ, মাস্তান, গডফাদার, রাজনীতিবিদ, আমলা, মন্ত্রী এবং মিডিয়ার সাংবাদিক ইত্যাদি। বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে বলছি ১০% মানুষ ভাল পেয়েছি, বাকী ৯০% মানুষ বিভিন্ন কিসিমের। আমি লেখক হলে তাদেরকে নিয়ে বই লিখতাম তাহলে সমাজের মানুষ একটু হলেও উপকৃত হত। তবুও হাল ছাড়িনি সীমাহীন কল্পনা করেছি যা হাজারের মধ্যে একটা হলেও বাস্তবে রূপ নিয়েছে। এটাই আমার লড়াইয়ের সার্থকতা।
-আম্বিয়া অন্তরা, নিউইয়র্ক ।
১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯।

Leave a Reply

More News from ফেসবুক থেকে

More News

Developed by: TechLoge

x