প্রবাসের আনন্দ এবং জমে উঠা আড্ডা

Posted on by

জাহাঙ্গীর আলম সিকদার : – প্রবাস মানে অভিশাপ আর অস্থিরতার এক যন্ত্রচালিত ধারক আর বাহকের বাস্তবতার এক সপ্নালাপ। নিজের সুখ দুঃখের পাশাপাশি কিছুটা হলেও লাঘব করে নেয় এক প্রবাসী আর এক প্রবাসীকে কারণ এখানে সুখ দুখকে ভাগাভাগি করে নেওয়ার এবং আলোচনায় দূর সুদূরের লোক পাওয়া দুরহ। কখনও কক্ষনও বিষণ্ণতায় কিংবা মনে পরা শৈশব কৈশোরের সৃতিচারণ করার আর এক নাম প্রবাস অনেকটাই মনে করি প্রবাসে থেকে।


ঠিক এমনি আন্তরিকতার এক অদ্ধ্যায় ৭ এপ্রিল ২০১৯ সুচনা
হল আমার জীবনের গল্পে এসে। এই জীবনের গল্প কারও একা নয় কিছু নিপীড়িত আর্তমানবতার মত এবং দেশ ও দেশের মানুষের সেবায় এগিয়ে আসতে চায় এমন কিছু সংখ্যক মানুষের সাথে পরিচয় মিলে খুব ভাল লাগলো। যারা বাংলা ভাষাকে লালন করতে চায় এবং পরবর্তী প্রজন্মকে জানাতে চায় মুখে অন্তরে ও বাংলা লিখার মাধ্যম এবং প্রতিভা দিয়ে এরকমই এক আড্ডায় দাওয়াত পেলাম সুদূর লন্ডন থেকে প্রায় ৬০ মাইল দূরে ওরথিংয়ের দাউইজ এভিনিউতে মরিয়ম চৌধুরীর বসবাসরত বাড়িতে, সেখানে অনেক জ্ঞানী গুনি মানুষের আগমন ছিল।ট্রাফিক আর জ্যামের কারণে যদিও গাড়িটাও যেন রেগে উঠে আর বলে ওহ! দেরি হয়ে যাচ্ছে তবুও শেষ পরযন্ত এলাম, ছিল পরিচিত বন্ধু সালাউদ্দিন ভাই ভাগ্যিস শেষ পর্যন্ত গিয়ে দেখি জমে উঠা আড্ডা প্রায় শেষ ফুল আর ফুলের তোরা এবং নাম জানা কাউন্সিলর আয়েশা চৌধুরী , মাহবুব মুরশেদ ভাই ও না জানা অনেক লোক নিশ্চয়ই আড্ডায় ভাল আনন্দ ছিল তবে শেষ পর্যন্ত কবি আপা সুনাম মনির প্রেমের কবিতায় মুগ্ধ হলাম এবং জীবনের গল্পের সভাকাংখিদের সাথে পরিচয়ে মুগ্ধ হয়ে স্রিতির ক্ষণ হিসেবে ছবি ফিরে এলাম জরাজীর্নতা ছিডে ব্যস্ততার নিজেস্ব গন্তব্যস্থল লন্ডন মেনরপারকে

Leave a Reply

More News from কমিউনিটি

More News

Developed by: TechLoge

x