আজকের সংসদে জাতীয় পার্টির যে অবস্থা, ঠিক তেমনই অবস্থা ছিল আওয়ামী লীগ ও জামায়াতের ১৯৮৭ সালে:গোলাম মাওলা রনি

Posted on by

আপোষহীন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে চিনতে হলে তার আচার-আচরণ কথাবার্তা এবং অতীতের সিদ্ধান্ত গুলো বিবেচনা করতে হবে।।
.আমি নিজে তাকে রাজপথে দেখেছি ১৯৮৭ সালে। পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য আরো অনেক সাংবাদিকের সাথে আমিও সেদিন দৈনিক বাংলার মোড়ে ছিলাম। এরশাদের পুলিশ সে দিন বেধড়ক লাঠিপেটা শুরু করলে মুহূর্তের মধ্যে বিএনপির জনসভাটি পণ্ড হয়ে যায়। রাজনৈতিকভাবে বিএনপি তখন বলতে গেলে এতিম। আওয়ামী লীগ ও জামায়াত তখন প্রকাশ্যে পরস্পরের হাত ধরে রাজনৈতিক মিত্রতা শুরু করেছিল এবং উভয় দল সরকারি আনুকূল্যে সংসদে ছিল। আজকের সংসদে জাতীয় পার্টির যে অবস্থা, ঠিক তেমনই অবস্থা ছিল আওয়ামী লীগ ও জামায়াতের ১৯৮৭ সালে। মাঠে কেবল বিএনপি একা ঢাল নেই, তলোয়ার নেই- নিধিরাম সরদার। বিএনপির বেশির ভাগ শীর্ষ নেতা তখন সরকারের রাহুগ্রাসে আবদ্ধ নতুবা প্রলুব্ধ। সেই অবস্থায় রাজপথের ছোট্ট একটি পথসভায়লাঠিচার্জ করে কয়েক মিনিটের মধ্যেই পুরো মাঠ ফাঁকা করে দিলো পুলিশ। সেই লাঠিচার্জে বেগম জিয়া নিজেও আঘাত পেলেন- পুলিশের লাঠির বাড়িতে তার ব্লাউজের একটি হাতা ফেটে গেল। তবুও তিনি এক চুল নড়লেন না কিংবা অগ্নিকন্যার মতো মাটিতে উপুড় হয়ে শুয়ে পড়ে কোনো সিনেমাটিক দৃশ্যের অবতারণা করলেন না। ফলে অগ্নিকন্যার বিরুদ্ধে পুলিশকে কামড় দেয়ার যে বিশ্রী অভিযোগ তোলা হয়েছিল, সেরূপ কোনো অভিযোগ পুলিশ করার সুযোগ পেল না।এক-এগারোর সময় বেগম জিয়ার ওপর রীতিমতো বিভীষিকা নেমে এসেছিল। তিনি তখন বন্দী। তারপুরো পরিবার বন্দী। ছেলে দুটোকে নির্মমভাবে প্রহার করা হচ্ছিল। এরই মধ্যে তার মা মারা গেলেন। এর পরও তিনি দমেননি ন্যায় হোক, অন্যায় হোক, তিনি তার সিদ্ধান্তে অটল ছিলেন। ৫ জানুয়ারির নির্বাচন নামক খেল-তামাশার প্রেক্ষাপটের আগে দেশী-বিদেশী হাজারো চক্র তাকে নানাভাবেবিভ্রান্ত কিংবা প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছে। বিপরীতে তিনি অটল ছিলেন। গত দুই বছরে তার ওপর যে লু হাওয়া প্রবাহিত হয়ে আসছে, তা অন্য কোনো মানুষের ওপর দিয়ে প্রবাহিত হলে দেখা যেত লোকটি পাগল হয়ে গেছে নতুবা হার্ট অ্যাটাক করেছে। নিজের সারা জীবনের স্মৃতিবিজড়িত আবাস থেকে কাউকে প্রকাশ্য দিবালোকে জোর করে বের করে দেয়া হলে এবং সেই বাড়ির বাথরুম, রান্নাঘর নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র বানিয়ে টেলিভিশনে প্রচার করা হলে মানুষটির মনের অবস্থা নিয়েঅবোধ জন্তু-জানোয়ারওঠাট্টা-মশকারা করবে না। কিন্তু বেগম জিয়া-বিরোধীরা সেই কর্ম করার পরও তিনি ছিলেন নিশ্চুপ। প্রতিক্রিয়াহীনও অবিচল।
—–সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনি।

More News from বাংলাদেশ

More News

Developed by: TechLoge

x