লন্ডনে আবৃত্তি সংগঠন কথন’র আত্মপ্রকাশ

Posted on by

লন্ডন : অনুষ্ঠিত হয়ে গেল কথন আবৃতি সংগঠনের আত্মপ্রকাশ উপলক্ষে আয়োজিত কথনের প্রথম পরিবেশনা দ্রোহে ভালবাসায় । পূর্ব লন্ডনের ব্রাডি আর্ট সেন্টারে গত ২৪ মার্চ, রবিবার অনুষ্ঠানে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের প্রাক্কালে সকল মহান মুক্তিযোদ্বা ও ৫২’র ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয় অনুষ্ঠানের শুরুতে।

মুকিত চৌধুরী সিতু এবং হাছিনা আক্তার পরিচালনায় একক, ডুয়েট এবং সমবেত কবিতা আবৃত্তি করে দর্শকে তাক লাগিয়ে দেন ফকরুল আম্বিয়া, আহমেদ ফয়েজ, সাইফুল রাজা চৌধুরী, সেতু চৌধুরী, হাসিনা আক্তার, ফারহানা মনি।সর্বাত্মক সহযোগীতায় ছিলেন সাদিক রহমান
উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কবি শামীম আজাদ, নজরুল ইসলাম বাসন , আবুল কালাম ছোটন, মুনিরা পারভিন, নোয়াখালী সমিতির সেক্রেটারী আবু জাফর, হাফসা ইসলাম , সৃত্মি আজাদ সহ আরো অনেকে।
সাহিত্য ও সংস্কৃতি চর্চার জগতে যুক্ত হলো নতুন একটি সংগঠন কথন। এই সংগঠনটিকে প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে ইউকে এবং ইউরোপে বসবাসরত সকলের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। সবার নিজ নিজ অবস্থান থেকে এই সহযোগীতা বিলেতে তথা ইউরোপে বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতির চর্চা ও বিকাশে “কথন” অমুল্য অবদান রাখবে বলে কথন বিশ্বাস করে।

বিশেষ করে বৃটেন ও ইউরোপে বাঙালী নতুন প্রজন্মের কাছে আমাদের ভাষা ও সংস্কৃতিকে সঠিকভাবে তুলে ধরতে কথন অঙ্গিকারবদ্ধ।
বাংলা ভাষার প্রচার এবং প্রসারের মাধ্যমে মূলধারার সাথে সম্পর্ক স্থাপন ও উন্নয়ন, কথনের অন্যতম প্রধান লক্ষ্য ।

আজ পুর্ব লন্ডনের ব্রাডি আর্টস সেন্টারে কথনের আত্মপ্রকাশ উপলক্ষে প্রথম পরিবেশনা “ দ্রোহে ভালবাসায় “ উপভোগ করতে যারা উপস্থিত হয়েছেন, তাদের প্রতি অনেক কৃতজ্ঞতা। আপনাদের উপস্থিতি এবং সহযোগীতা কথনের সামনে পথচলাকে অনেক সহজ করবে। 

কথন আবৃত্তি সংগঠন যার পুরো নাম কাব্য থেকে নেয়া।
কথনের প্রচেষ্টা থাকবে আপনাদেরকে রুচিশীল কিছু অনুষ্ঠানউপহার দেওয়া যাতে কবিতার অনুষ্ঠানের প্রতি মানুষের আগ্রহ আরো বৃদ্বি পায়, কবিতার মাধ্যমে মানুষ যেন দেখতে পায় তার শাশ্বত বাংলা ও তার সমৃদ্ধ সংস্কৃতিতে। কথন হয়ে উঠতে চায় বাংলা কবিতা ও সংস্কৃতির এক স্বার্থক আয়না।

More News from কমিউনিটি

More News

Developed by: TechLoge

x