জেনারেল তারিক- কর্নেল শহিদ ক্যাচাল /বাংলাদেশে আল জাজিরার সম্প্রচার বন্ধ

Posted on by

নিউজ লাইফ লন্ডন ডেস্ক : তিন দিন আগে আলজাজিরায় বাংলাদেশের মিডনাইট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিয়াই-কাম নিরাপত্তা উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) তারিক সিদ্দিক কতৃক ব্যবসায়িক কারনে তিন ব্যক্তিকে অপহরণের অভিযোগ আনা হয়েছে। ঐ প্রতিবেদন কর্নেল শহীদ এজন্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন দলিলপত্রাদিও উপস্থাপন করেছিলেন।

এরপরে বাংলাদেশে আলজাজিরাকে অঘোষিতভাবে নিষিদ্ধ করে হাসিনার সরকার। মানে অভিযোগ সত্য। এটা সামলানোর ক্ষমতা তারিক বা তার সরকারের নাই। তাই পত্রিকাই নিষিদ্ধ করে দেয়!

এরপর গতকাল বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালে একটি সুলিখিত প্রতিবেদন ছেড়ে দেয়া হয়েছে, যাতে বলা হচ্ছে, কর্নেল শহীদ একজন চিহ্নিত অপরাধী, এবং জঙ্গি। তার নামে ১২টি মামলা আছে। লেখার স্টাইল দেখে অনুমান করা যায়, এটি বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা গোয়েন্দার দক্ষ কর্মকর্তাদের লিখিত।
উত্তম কথা! তাহলে আরো অনেকগুলি প্রশ্নের জবাব দিতে হবে-

১) কর্নেল শহীদ যেহেতু প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) তারিক সিদ্দিকের ব্যবসায়িক পার্টনার, তাহলে এতবড় ক্রিমিনাল ও জঙ্গির সাথে জেনারেল তারিক ১০ বছর ব্যবসা করলেন কি করে? শহীদ জঙ্গি হলে তারিক সিদ্দিকও কি জঙ্গি নয়? নাকি জঙ্গির গড ফাদার? কারন কর্নেল শহীদকে পরিচালনা করতেন জেনারেল তারিক। প্রধানমন্ত্রীর অফিসে তারিক সিদ্দিকের কাছে কতদিন গিয়েছেন কর্নেল শহিদ? নিশ্চয় এসএসএফের কাছে রেকর্ড আছে!

২) তারিক সিদ্দিকের স্ত্রী শাহীন সিদ্দিক, কন্যা নৌরিন তাসমিয়া সিদ্দিক, কন্যা বুশরা সিদ্দিক এরা সবাই কর্নেল শহীদের স্ত্রী ও কন্যাদের সাথে একত্রে প্রচ্ছায়া কোম্পানী খুলে ২০০৯ সালে থেকে ২০১৮ সাল অবধি কোটি কোটি টাকার ব্যবসা করেছেন। কি ব্যবসা করেছেন, এর একটা বিবরণ অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছে-

“জানা গেছে, জেনারেল তারিক ও কর্নেল শহীদের ব্যবসায়িক ফার্ম রামপুরা, হাতিরঝিল, সাতারকুল, সাভার, টঙি এলাকায় প্রচুর জমি নামমাত্র মূল্যে কব্জা করে শত শত প্লট বিক্রি করে কয়েক হাজার কোটি টাকার ব্যবসা করে। এছাড়া আর্মির মেশিন টুলস ফ্যাক্টরির নামে বিদেশ থেকে বিভিন্ন ইন্ডাস্ট্রিয়াল মেশিনারিজ এনে উচ্চমুল্যে বাইরে বিক্রি করা হত, যা আর্মির ঘাড়ে বন্দুক রেখে অবৈধ ব্যবসা ছাড়া আর কিছু নয়। এসব ব্যবসার সিংহভাগ অর্থ তারিক সিদ্দিক হাতিয়ে নেন, এই অযুহাতে যে, তার ক্ষমতার প্রভাবেই সব কাজ হয়েছে! সবচেয়ে বড় ক্যাচাল সৃষ্টি হয় রামপুরা এলাকায় ৫ বিঘার একটি জমি নিয়ে। ঐ খাস জমিটি বাস্তুহারা সমিতির নামে লিজ নিয়ে কম মূল্যে ৭০ কোটি টাকায় এক পার্টির কাছে বিক্রি করে দেন তারিক সিদ্দিক। কর্নেল শহিদের অনুমান এই এক প্লট থেকে জেনারেল তারিক অন্তত তিন’শ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। এত কমমূল্যে বিক্রির কারণ জানতে চাইলে তারিক সিদ্দিক জানান, এটা নিয়ে পরে ক্যাচাল হতে পারে, তাই ছেড়ে দিতে হয়েছে। শেষ পর্যন্ত এই ডিলটি বিরোধে রূপ নেয়, এবং কর্নেল শহিদকে থেমে যেতে হুমকি দেন জেনারেল তারিক। অবস্থা বেগতিক দেখে কর্নেল শহীদ তার ব্যাচমেট জেনারেলদের সাহায্য নিয়ে দেশ ছেড়ে লন্ডনে পাড়ি জমান। কর্নেল শহীদ লন্ডন থেকে বিভিন্ন চ্যানেলে জেনারেল তারিককে তার হিসাব কিতাব বুঝিয়ে দেয়ার অনুরোধ জানান। কিন্তু কোনো সাড়া না পেয়ে শেষে বৃটিশ আইনজীবি দিয়ে কয়েক মিলিয়ন ডলারের পাওনা চেয়ে তারেক সিদ্দিককে লিগ্যাল নোটিশ পাঠান। এরপরেই কর্নেল শহীদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ৩ কর্মীকে র‌্যাব দিয়ে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে এবছর ১৬ই জানুয়ারি কর্নেল শহীদের বাসা বাড়ি অফিস তছনছ করে ২৭ বাক্স মূল্যবান জিনিষপত্র এবং কাগজপত্র তুলে নেয় র্যা ব। কর্নেল শহিদ সহ তার তিন কর্মীর বিরুদ্ধে রাষ্ট্র বিরোধী এবং জঙ্গি মামলা দেয়া হয়, যা মিথ্যা বলে দাবী করেন কর্নেল শহীদ।”

এই সব ঠগবাজি ব্যবসার কাহিনীর পেছনে নিশ্চয় আরও বহু ঘটনা অঘটন আছে। এরপরে আমরা অপেক্ষায় রইলাম শেখ হাসিনার বিয়াই এবং নিরাপত্তা উপদেষ্টা হিসাবে চাকরিরত থেকে ক্ষমতার অপব্যবহার করে প্রতিরক্ষা উপদেষ্টা সেজে তিন বাহিনীতে কি কি অপকর্ম করেছেন, কত সহায় সম্পদ লুটেছেন, কত মানুষ গুম খুন করিয়েছেন–কর্নেল শহীদ নিশ্চয় পরবর্তী কিস্তিতে তা ফাঁস করবেন।

আর গোয়েন্দা সংস্থা যে কর্নেল শহীদকে জঙ্গি বানাতে গিয়ে জেনারেল তারিককে জঙ্গির গডফাদার বানিয়ে ফেলেছেন, তার কি হবে?

[ফুটনোট: লে. কর্নেল শহিদ উদ্দিন খান বিএনপির আমলে ২০০৫ সালে চাকরিচ্যুত হন (অকালীন অবসর)। এরপর ২০০৯ সালে আ’লীগ ক্ষমতায় আসার পরে তাকে অবসর থেকে ডেকে এনে ভূতাপেক্ষভাবে কর্নেল প্রমোশন দেয়া হয়। উল্লেখ্য, ফুল কর্নেল প্রমোশন দিতে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন লাগে। এক্ষণে কর্নেল শহিদ যদি জঙ্গি হয়ে থাকে, তবে জঙ্গির পৃষ্ঠপোষক কি শেখ হাসিনা? অন্যদিকে তারিক সিদ্দিকের অনেক জুনিয়র হওয়া সত্ত্বেও কর্নেল শহিদকে ব্যবসায়িক পার্টনার করে ২০০৯ সালে থেকে নিরাপদে ব্যবসা করতে থাকেন।]

More News from আন্তর্জাতিক

More News

Developed by: TechLoge

x