জেসিন্ডা আর্ডেন আসলে এক মহামানবী

Posted on by

বিশিষ্ট সাংবাদিক তাইসির মাহমুদের ফেইসবুক থেকে সংগৃহিত.  

জেসিন্ডা আর্ডেন কোনো সাধারণ নারী নন; তিনি আসলেও এক মহামানবী। নোবেল শান্তি পুরষ্কারের চেয়ে বড় কিছু থাকলে সেটিই তাঁর প্রাপ্য । মুসলমানদের ওপর নৃশংস হত্যাযজ্ঞের পর তাঁর প্রতিটি পদক্ষেপ মুসলমানদের আবেগাপ্লুত করেছে । আমার চোখে পানি আসছে। এমন ভালো মানুষ পৃথিবীতে আছেন? নিউজিল্যান্ড আসলেও যে একটি শান্তির দেশ- তারই প্রমান দিলেন প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা।
জেসিন্ডার বয়স মাত্র ৩৮ । তিনি বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ নারী প্রধানমন্ত্রী । ৯ মাসের সন্তানকে ঘরে স্বামীর কাছে রেখে তিনি ছুটে চলেছেন মুসলিম কমিউনিটির ঘরে ঘরে। মাথায় ওড়না ও শোকের কালো জামা পরে মুসলমানদেরকে এই কঠিন সময়ে কাছে টেনে নিচ্ছেন ।
আজ মঙ্গলবার পার্লামেন্ট অধিবেশন শুরু হলো পবিত্র কুরআন তেলাওয়াত দিয়ে । ইংরেজিতে অনুবাদ করলেন আরো একজন। প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য শুরু করলেন আসসালামু আলাইকুম বলে। শেষ করলেন ওয়াআলাইকুম সালাম দিয়ে। তেলাওয়াত দিয়ে অধিবেশন শুরু, নামাজ দিয়ে শেষ হলো সংসদের কার্যক্রম।
শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চ শহরের মসজিদ দুটোতে হামলার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনালড ট্রাম্প ফোন দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডেনকে। জানতে চেয়েছিলেন, যুক্তরাষ্ট্র তাঁর জন্য কী করতে পারে? জবাবে জেসিন্ডা বলেছিলেন, কিছুই চাইনা। শুধু চাই মুসলমান কমিউনিটির প্রতি আপনার ভালোবাসা ও সহানুভূতি।
জেসিন্ডা আর্ডেন পৃথবীতে একজনই। তাঁর কাছ থেকে বিশ্বনেতাদের অনেক কিছুই শেখার আছে। শেখার আছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের।
তাইসির মাহমুদ
লন্ডন, যুক্তরাজ্য
১৯ মার্চ ২০১৯

More News from ফেসবুক থেকে

More News

Developed by: TechLoge

x