বিএসএমএমইউ-এ ভর্তি খালেদা জিয়া, মেডিক্যাল বোর্ড বসছে কাল

Posted on by

নিউজ লাইফ ডেস্কঃ কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পরবর্তী করণীয় নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বিএসএমএমইউ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আব্দুল্লাহ আল হারুন।

শনিবার খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে ভর্তির পর বিকাল পৌনে ৫টায় হাসপাতালের সি-ব্লকের কনফারেন্স রুমে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন তিনি।ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আব্দুল্লাহ আল হারুন বলেন,খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য গঠিত পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড রোববার বৈঠকে বসবেন। জাতীয়তাবাদী দলের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া কারাগার থেকে এসে আমাদের এখানে ভর্তি হয়েছেন।তিনি বলেন,বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কেবিন ব্লকের ষষ্ঠতলায় অবস্থান করছেন।তার চিকিৎসার বিষয়ে আদালত থেকে একটি আদেশ জারি করা হয়েছিল।ওই নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করেছি।খালেদা জিয়া আসার পর বোর্ডের প্রধান অধ্যাপক ডা.এম এ জলিল চৌধুরী তার সঙ্গে দেখা করেন।চিকিৎসা শুরুর আগে যেসব ফরমালেটিজ করা প্রয়োজন সেগুলো করা হয়েছে।

রোববার বেলা ১টার পর পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট মেডিকেল বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হবে। বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আমরা চিকিৎসা শুরু করতে পারব বলে জানান তিনি।আব্দুল্লাহ আল হারুন বলেন, আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের তিনজন সদস্য পরিবর্তন করা হয়েছে। নতুন যাদের বোর্ডে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে তারা হলেন, প্রখ্যাত রিউমাটোলজিস্ট অধ্যাপক ডা. সৈয়দ আতিকুল হক, কার্ডিওলজি বিভাগের প্রাক্তন চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সজল কৃষ্ণ ব্যানার্জি এবং অর্থপেডিক বিভাগের প্রাক্তন চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. নকুল কুমার দত্ত।হাসপাতালের পরিচালক বলেন, এছাড়া আগের বোর্ডেন প্রধান ইন্টারনাল মেডিসিনের অধ্যাপক ডা. আব্দল জলিল চৌধুরী এবং ফিজিকাল মেডিসিন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. বদরুন্নেসা আহমেদ বোর্ডে রয়েছেন।

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা জানতে চাইলে তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া আমাদের সঙ্গে কথা বলেছেন, কুশল বিনিময় করেছেন। উপাচার্য মহোদয়ও তাকে দেখতে গিয়েছিলেন, তার সঙ্গে তিনি কথা বলেছেন। তার নিরাপত্তার বিষয়ে জানতে চাইলে ব্রিগেডিয়ার হারুন বলেন, জেলকোড অনুযায়ী তার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।দুর্নীতি মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য আদালতের নির্দেশে অনুযায়ী শনিবার বিকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ভর্তি করা হয়।

খালেদা জিয়ার জন্য বিএসএমএমইউতে দুটি কেবিন দুপুর থেকে প্রস্তুত রাখা হয়েছিল।৬১২ নম্বর কেবিনে থাকলেও খালেদা জিয়ার জন্য পাশের ৬১১ নম্বর কেবিনটিও বরাদ্দ রাখা হয়েছে।ওই কক্ষে তার সহকারী বা কারা নিরাপত্তারক্ষীরা থাকতে পারবেন বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে আনার আগে দুপুরে তার ব্যবহার্য জিনিসপত্র হাসপাতালে আনা হয়।এর আগে চলতি বছরের ৭ এপ্রিল বেগম খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য কারাগার থেকে বিএসএমএমইউতে আনা হয়েছিল।তখন তার শরীরের কয়েকটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা পুনরায় জেলাখানায় পাঠানো হয়।তার ছয় মাস পর শনিবার তাকে চিকিৎসার জন্য বিএসএমএমইউতে ভর্তি হলো।

উল্লেখ্য,জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়া এখন কারাগারে বন্দি। ৫ বছরের দণ্ড নিয়ে তিনি নাজিমউদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন।

Leave a Reply

Developed by: TechLoge

x