‘নির্বাচন কমিশন সরকারের তল্পিবাহক’

Posted on by

ইউএনএন বিডি নিউজঃ নির্বাচন কমিশনকে বর্তমান সরকারের তল্পিবাহক বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। আজ দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে লেবার পার্টি আয়োজিত ‘প্রতিহিংসার রাজনীতি: জাতীয় নির্বাচন ও বর্তমান প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, একদিকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে। নেতাদের কোথাও দাঁড়াতে দেয়া হচ্ছেনা। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী সরকারি খরচে জনসভা করে মানুষের কাছে ভোট চাইছেন। এটা সম্পূর্ণ বেআইনী।
সংবিধান পরিপন্থী। কিন্তু নির্বাচন কমিশন বলছেন তাদের এবিষয়ে কিছু করার নেই। আসলে তাদের শক্তি নাই। তারা নিরোপেক্ষ নয়। তারা সরকারের তল্পিবাহক প্রতিষ্ঠান। আজকে যদি ভারতে হতো তাহলে নির্বাচন কমিশন ব্যবস্থা নিতো। নির্বাচন কমিশনের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, হয় সরকারি খরচে ভোট চাওয়া বন্ধ করেন অথবা আমাদেরও ভোট চাওয়ার সুযোগ দেন। আমরাও ধানের শীষে ভোট চাই। মওদুদ আরো বলেন, বাংলাদেশের মানুষ ক্ষুুব্ধ হয়ে আছে। তারা সহ্য করছে। একটা সুযোগ পেলে ব্যালটের মাধ্যমে বুঝিয়ে দেবে। উন্নয়ন যদি এতোই করে থাকেন, উন্নয়নের কথা বলে খুলনায় ভোট চাইবেন। কিন্তু বিএনপিকে এতো ভয় কেন।
সরকারি দলের অনেকে বলেন, সংবিধানে যা আছে সেই অনুযায়ী নির্বাচন হবে। তাদের কাছে প্রশ্ন বিচারপতি সাহাবুদ্দিন আহম্মেদ যে প্রেসিডেন্ট হলেন, এটা কিভাবে কোন সংবিধানে ছিল। জনগণের দাবি অনুযায়ী রাজনৈতিক সমঝোতার মাধ্যমে তিনি প্রেসিডেন্ট হয়ে সুষ্ঠু নির্বাচন করেছিলেন। আমরা এখন ভোটের অধিকার ফিরে পেতে চাই। এরচেয়ে বড় কোন দাবি তো হতে পারেনা। সমঝোতার ভিত্তিতে সবই হতে পারে। ইতিহাস সেটি সাক্ষ্য দেয়।
বিএনপির এই নেতা বলেন, কোন সংবিধান মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে না পারলে জনগণের ইচ্ছায় রাজনৈতিক সমঝোতার মাধ্যমে সব হতে পারে। এক্ষেত্রে সংবিধান বাধা হয়ে দাঁড়াবেনা।
লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরানের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ ববুলু, মির মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য বাবু নিতাই রায় চৌধুরী, লেবার পার্টির মহাসচিব প্রকৌশলী ফরিদ উদ্দিন, ভাইস চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।

More News from বাংলাদেশ

More News

Developed by: TechLoge

x