আলোপ-আলোচনার মাধ্যমে আওয়ামী লীগই ভবিষ্যতের পথ দেখাবে: মির্জা ফখরুল

Posted on by

ইউএনএন বিডি নিউজঃ বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলোপ-আলোচনার মাধ্যমে আওয়ামী লীগই ভবিষ্যতের পথ দেখাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রবিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে বেসরকারি টেলিভিশন এনটিভিকে দেওয়া সরাসরি সাক্ষাৎকারে মির্জা ফখরুল এ আশাবাদ প্রকাশ করেন।বিএনপির মহাসচিব বলেন, “আওয়ামী লীগ বড়, ঐতিহ্যবাহী ও পুরনো একটি রাজনৈতিক দল। পুরনো গণতান্ত্রিক ঐতিহ্যকে সামনে রেখে ‘দেয়ার কামব্যাক টু দি দেয়ার সেন্সেস’।”

আশা প্রকাশ করে তিনি আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগ দেশ, মানুষ ও জাতির জন্য একটা পথ খুঁজে বের করবে। আলাপ-আলোচনার মধ্য দিয়ে বিরোধী দলগুলোর সঙ্গে সহনশীলতার রাজনীতি করে তারা একটা সুন্দর ভবিষ্যতের পথ দেখাবে, এটাই আমরা আশা করি।বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আমাদের সবার এই মনোভাবই পোষণ করা উচিত যে, সংঘাত বা প্রতিহিংসা নয়, আলাপ-আলোচনার মধ্যদিয়েই সমস্যার সমাধান করা উচিত।মির্জা ফখরুল তার সাক্ষাৎকারে মুক্তিযুদ্ধ, দেশের চলমান রাজনীতি, বিএনপির সাংগঠনিক অবস্থা, আগামী দিনের নির্বাচন, সহায়ক সরকার প্রস্তাব নিয়েও কথা বলেন।দেশের মানুষের ওপর প্রত্যাশা ব্যক্ত মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষের অন্তর্নিহিত যে স্পিরিট, সেটাই পথ করে দেবে, বরাবরই দিয়েছে। সেই ১৯৫২ সাল থেকে, মুক্তিযুদ্ধ, স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনসহ নানা সময়ে গণতান্ত্রিক আন্দোলনগুলোয় বাংলাদেশের মানুষই উঠে দাঁড়িয়েছে। তারা তাদের পথ করে নিয়েছে। সেই মানুষের ওপর আমরা বেশি আস্থা রাখি। সেই মানুষই তার প্রয়োজনে তার অধিকার আদায়ে কাজ করবে। ’

সহায়ক সরকারের প্রস্তাবের বিষয়ে ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘যথাসময়ে প্রস্তাব দেওয়া হবে। তবে এর আগে সরকারকে বসতে হবে। সরকার যখনই বসতে চাইবে, তখনই আমরা প্রস্তাব প্রকাশ করবো। এটা আমাদের কাছে তৈরি আছে।’নির্বাচন কমিশনের ওপর খুব বেশি আস্থা নেই বলে জানান মির্জা ফখরুল।মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এই সরকারের সময়ে লাখ-লাখ মামলায় লাখ-লাখ নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে।মির্জা ফখরুল আরও বলেন, ‘আমরা নির্বাচনের সুনির্দিষ্টভাবে বলেছি। বর্তমান ব্যবস্থার ওপর নির্বাচন সুষ্ঠু হবে। প্রথম কথা হচ্ছে, সংসদ ভেঙে দিতে হবে। সংসদ রেখে সংসদ সদস্যরা বহাল থাকবেন, নির্বাচন করবেন, এটা কঠিন।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘এই সংসদ রেখে সংসদ নির্বাচন হতেই পারে না। সেই নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না। ইতোমধ্যে কোটি-কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে তাদেরকে কাজ করার জন্য।’

নিরপেক্ষ সরকার যেন গঠন করা যায়, তার জন্য সমান সুযোগ দিতে হবে বলেও জানান ফখরুল।বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান জানান, মির্জা ফখরুল ইতোমধ্যে কয়েকটি চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন। আগামী দিনেও আরও গণমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দেবেন।

More News from বাংলাদেশ

More News

Developed by: TechLoge

x