সংবাদ সম্মেলনে রিজভী সহায়ক সরকার ’৯৬ সালে হলে ২০১৮-তে নয় কেন

Posted on by

ইউএনএন বিডি নিউজঃ বিএনপির সহায়ক সরকারের দাবি অসাংবিধানিক হলে ’৯৬ সালে আওয়ামী লীগ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে কেন আন্দোলন করেছিল—এমন মন্তব্য করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে গতকাল বুধবার সংসদে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এ মন্তব্য করেন।

গতকাল জাতীয় সংসদে নির্বাচনকালীন সরকার কেমন হবে—তা ব্যাখ্যা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন দায়িত্ব পালন করবে আর সে সময় সরকার হবে ছোট পরিসরে। ওই সরকার নীতিগত কোনো সিদ্ধান্ত নেবে না, শুধু রুটিন কাজ করবে। এ সময় প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, বিএনপির দাবি অসাংবিধানিক।জবাবে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘এটা এখন প্রধানমন্ত্রীকে জিজ্ঞাসা করার বিষয় যে, আপনি সংবিধান সংশোধন করতে আন্দোলন করে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা আপনি চেয়েছিলেন। পরে তা সংযোজিত হয়েছিল সংবিধানে। আপনি এখন কেন বলছেন, সংবিধানের বাইরে যাওয়া যাবে না। তখন কীভাবে বাইরে যেতে পেরেছিলেন। তো এখনো সেভাবে যাবে।’

‘গণতন্ত্রে সংবিধান দেশের এবং জনগণের চাহিদা অনুযায়ী যুগে যুগে এটা সংশোধিত হয়-ই। এটাই হচ্ছে, গণতন্ত্রের সর্বোৎকৃষ্ট দৃষ্টান্ত,’ যোগ করেন রিজভী।

গত কয়েক দিনে বিএনপির কয়েকশ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন এই বিএনপি নেতা। তিনি অভিযোগ করেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সরকারের লাঠিয়াল বাহিনীতে পরিণত হয়েছে।বিএনপি চেয়ারপারসনকে আদালতে হাজিরার নামে হয়রানি করা হচ্ছে আর প্রধানমন্ত্রী সরকারি সুবিধা ভোগ করে নির্বাচনী প্রচার চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন রিজভী। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নেতিবাচক রায় হলে বিএনপির নেতাকর্মীরা রাজপথে এর প্রতিবাদ জানাবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।আগামী শনিবার রাজধানীর লা মেরিডিয়েন হোটেলে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হবে বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানান রিজভী আহমেদ।

Developed by: TechLoge

x