সমঝোতায় না এলে বিএনপির ‘লাস্ট অ্যান্ড ফাইনাল’ কর্মসূচি : মওদুদ আহমদ

Posted on by

ইউএনএন বিডি নিউজঃ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে সমঝোতা না হলে আন্দোলন হবে। সেই আন্দোলন হবে বিএনপির লাস্ট অ্যান্ড ফাইনাল কর্মসূচি।

আজ রোববার বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের উদ্যোগে কারাবন্দি সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের জুয়েল ও সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসিন আলীর মুক্তির দাবিতে আয়োজিত সমাবেশে তিনি একথা বলেন।

মওদুদ আহমদ বলেন, সরকারকে বলব, যদি সমঝোতায় না আসেন। আমি বলতে চাই, যতই অত্যাচার-নির্যাতন করেন না কেনো, যতই মামলা-হামলা দেন না কেনো, যতই আমাদের নেত্রীকে অবরুদ্ধ রাখার ব্যবস্থা করেন না কেনো, এমন একদিন আসবে যেদিন আপনারা বাধ্য হবেন জনগণের এই দাবি (নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন) মেনে নিতে। আমাদের নেত্রী এসব পরোয়া করেন না। এবার সময় বুঝে একটি উপযুক্ত সময়ে কর্মসূচি দেয়া হবে। যাতে করে আমাদের পিছে চলে যেতে না হয়। আমি আশা করি, সেই জোয়ারে নৌকা ভেসে যাবে, আন্দোলনের মাধ্যমে তাদেরকে দাবি মানতে বাধ্য করা হবে।

তিন বলেন, বিএনপিকে বন্দি রেখে ১০ মাস আগে দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়ে শেখ হাসিনা প্রচারাভিযান শুরু করেছেন। এই অবস্থায় নির্বাচন কমিশনের উচিত প্রধানমন্ত্রী এবং সরকারি দলকে বলা, এখন নির্বাচনী প্রচারনাভিযানে যাবে না। আর যদি না বলেন তাহলে নির্বাচন কমিশনকে পদত্যাগ করতে হবে। এই দুর্বল কমিশন দিয়ে আগামী দিনে কোনোভাবেই নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভবপর হবে না।

মওদুদ আহমদ বলেন, আমাদের ভোট চাওয়ার সুযোগ দিন, এখনই দিন। তাহলেই বুঝব, আপনারা একটা প্রতিন্দ্বন্দ্বিতামূলক এবং সবার অংশ গ্রহণের মাধ্যমে একটি নির্বাচন চান। এটাতো কোনো বাহাদুরি হলো না। আমাদের সবাইকে হাত-পা বেঁধে ঘরের মধ্যে রেখে আপনারা একতরফাভাবে নির্বাচনী প্রচারাভিযান চালিয়ে যাবেন।

সাবেক আইনমন্ত্রী বলেন, আজকের পত্রিকায় এসেছে, প্রধানমন্ত্রী নামছেন নির্বাচনী প্রচারে। ৩০ জানুয়ারি হযরত শাহজালালের মাজার জিয়ারত ও সিলেটে সমাবেশের মাধ্যমে আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী সফর শুরু হচ্ছে। নির্বাচন কমিশন এই সরকারের তল্পিবাহক একটি প্রতিষ্ঠান। তারা কী দেখছেন না, তারা কি টেলিভিশন দেখেন না, খবরের কাগজ পড়েন না। এখনই যদি আপনারা (ইসি) এটা এলাউ করেন তাহলে নির্বাচনের সময় কী হবে আপনারা চিন্তা করে দেখেন।

এসময় সদ্য কারামুক্ত নেতা রফিক হাওলাদারকে ফুল দিয়ে বরণ করেন তিনি।

সংগঠনের সভাপতি শফিউল বারী বাবুর সভাপতিত্বে সভায় বিএনপি নেতা আমান উল্লাহ আমান, হাবিব উন নবী খান সোহেল, আজিজুল বারী বাবু, মীর সরফত আলী সপুসহ স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতারা বক্তব্য রাখেন।

Developed by: TechLoge

x