ক্যালিফোর্নিয়া বিএনপির বিজয় দিবস উদ্‌যাপন সরকার চায় না বিএনপি নির্বাচনে আসুক

Posted on by

ইউএনএন বিডি নিউজঃ বিজয় দিবস উপলক্ষে ক্যালিফোর্নিয়া শাখা বিএনপি স্থানীয় বাংলাদেশ একাডেমি মিলনায়তনে সম্প্রতি আলোচনা সভার আয়োজন করেছে। অনুষ্ঠানে বক্তারা বাংলাদেশের বর্তমান আর্থসামাজিক ও রাজনৈতিক পরিস্থিতি তুলে ধরে বলেন, গুম-খুন করে এই সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারবে না।

সংগঠনের সভাপতি শামসুজ্জোহা বাবলুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এম ওয়াহিদ রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক এবং ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক সাংসদ ডা. দেওয়ান মো. সালাহউদ্দিন বাবু। বিশেষ অতিথি ছিলেন ক্যালিফোর্নিয়া বিএনপির উপদেষ্টা কমিউনিটি নেতা মুক্তিযোদ্ধা ড. জয়নাল আবেদিন ও কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব আবুল ইব্রাহিম। অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন ক্যালিফোর্নিয়া শাখা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি নেয়াজ মোহাইমেন, সহসভাপতি সাইফুল আনসারি চপল, নুরুল ইসলাম, আফজাল হোসেন শিকদার, মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের, আহসান হাফিজ রুমি, জুনেল আহমেদ, মার্শাল হক, শওকত হোসেন আনজিন, মো. দেলোয়ার চৌধুরী, আবুল হাসনাত মন্টু চৌধুরী, মোহাম্মদ রফিকুজ্জামান জুয়েল, নয়ন বড়ুয়া প্রমুখ।
দেওয়ান মো. সালাহউদ্দিন বলেন, পদ্মা সেতুসহ বিভিন্ন প্রকল্পে সরকার বারবার বাজেট পরিবর্তন করে খরচ প্রাথমিক থেকে দ্বিগুণ, দ্বিগুণ থেকে চারগুণ বাড়িয়ে শুভংকরের ফাঁকিতে দুর্নীতি করছে। প্রশাসনে দলীয়করণের যে সুফল এই স্বৈরাচারী সরকার ভোগ করছে, সময়মতো সেটাই তাদের জন্য কাল হয়ে দাঁড়াবে। একটি মাত্র নিরপেক্ষ নির্বাচনেই এই স্বৈরাচারের পতন ঘটবে এবং সে দিন আর দূরে নেই। সরকারের কাছে গোয়েন্দা প্রতিবেদন রয়েছে, আগামী নির্বাচনে তাদের ভরাডুবি হবে। নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে তারা সর্বোচ্চ ৪০টি আসন পাবে। তাই সরকার চায় না বিএনপি নির্বাচনে আসুক। কিন্তু বিএনপি নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত। সরকার যথা সময়ে একটি নিরপেক্ষ নির্বাচন দিতে বাধ্য হবে।
ড. জয়নুল আবেদীন মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করে বলেন, সারা দেশে বিএনপির নেতা-কর্মীরা ঐক্যবদ্ধ থেকে আধুনিক টুলস ব্যবহার করে দলের পক্ষে প্রচারণা চালিয়ে যেতে পারে। সংবাদমাধ্যমের ওপর সরকারের বাকশালি-স্বৈরাচারী আচরণ সাধারণ জনগণকে বিক্ষুব্ধ করে তুলছে। মানুষ গুম-খুন-দুর্নীতি-ব্যাংক ডাকাতির বিরুদ্ধে রায় দেওয়ার অপেক্ষায় আছে। আর বিএনপিকে সেই সুযোগটা কাজে লাগাতে নির্বাচনে যাওয়ার বিকল্প নাই।
অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন হাসানুজ্জামান মিজান, মিশর নুন, অপু সাজ্জাদ, ইলিয়াস শিকদার, আমজাদ হোসেন, মো. রফিক, মেহেদী হাসান, আশরাফুল আলম হেলাল, এলেন ইলিয়াস খান, বাদল খান, মোহাম্মদ সেলিম রেজা পিন্টু, যুগ্ম সম্পাদক ফারুক হাওলাদার, রনি জামান, আলমগীর হোসেন, আসাদুজ্জামান রাজু, দেলোয়ার চৌধুরী, সহসাধারণ সম্পাদক খন্দকার জাভেদ, হোসেন লিটু, শেখ সেলিম, হেলাল আহমেদ ভূঁইয়া, মোহাম্মদ শাহানুর, মোহাম্মদ ফরিদ আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহাদাত হোসেন শাহীন, লোকমান হোসেন, সহসাংগঠনিক সম্পাদক নয়ন বড়ুয়া, দপ্তর সম্পাদক আবু তাহের সাজু, সহদপ্তর সম্পাদক মোশাররফ হোসেন ইমন, কোষাধ্যক্ষ মো. আবদুল মান্নান, সহকোষাধ্যক্ষ আক্তার মাতুব্বর, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. শফিকুল ইসলাম পলাশ, সহপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবুল কায়সার, তত্ত্ব ও প্রযুক্তি সম্পাদক শাহ নেওয়াজ, সহ তত্ত্ব ও প্রযুক্তি সম্পাদক এ কে এম আসিফ, ক্রীড়া সম্পাদক ইফতেখার হোসেন ফাহিম, যুব বিষয়ক সম্পাদক কোহিনুর রহমান, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মেহেদী হাসান, শিক্ষা সম্পাদক সাঈদ খান, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হাফেজ মোহাম্মদ বেলাল, সহ ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাহতাব কবির ভূঁইয়া, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মো. মিজানুর রহমান, সাংস্কৃতিক সম্পাদক শাহনাজ বুলবুল, সহসাংস্কৃতিক সম্পাদক সোহেল মিয়া, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ফেরদৌস কবির সুজন, সহ স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক রাজু ইসলাম, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা ফরিদা বেগম, সহমহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা মনিরা মিজান, আইন বিষয়ক সম্পাদক ওমর ফারুক, সহ আইন বিষয়ক সম্পাদক সারোয়ার সুমন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক আবুল খায়ের, সহ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক ইয়াসির আরাফাত মুন্না, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক মো. খসরু রানা, সহ সমাজ কল্যাণ সম্পাদক তানভীর আহমেদ প্রমুখ।
অনুষ্ঠান দেওয়ান মো. সালাহউদ্দিন বিএনপি নেতাদের সঙ্গে ক্যালিফোর্নিয়া শাখা বিএনপির কার্যালয় পরিদর্শন করেন।

Developed by: TechLoge

x