৬ নারীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ফেসবুকে : সেই ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার

Posted on by

ইউএনএন বিডি নিউজঃ শরীয়তপুরে ছয় নারীকে ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ ও সেসব দৃশ্য গোপনে ভিডিও করার অভিযোগে অভিযুক্ত শরীয়তপুরের নারায়ণপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আরিফ হোসেন হাওলাদারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শরীয়তপুরের গোসাইরহাট সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার থান্দার খায়রুল হাসানের নেতৃত্বে তাকে আটক করা হয়। গতকাল বিকাল সাড়ে চারটার দিকে গোসাইরহাট উপজেলার সাইক্কা ব্রিজ এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।
এসএসপি থান্দার খায়রুল হাসান বলেন, আরিফ চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ থেকে ট্রলারযোগে গোসাইরহাট আসছিল। সে তার বাবা ও মামার সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করেছিল। ওই ফোনের কল ট্র্যাকিং করে তার অবস্থান নিশ্চিত করা হয়। পদ্মা ও মেঘনা নদী পাড় হয়ে জয়ন্তিয়া নদীতে ট্রলার প্রবেশ করলে পুলিশ তাকে আটক করে।
তাকে ভেদরগঞ্জ থানায় নেয়া হচ্ছে। পরবর্তিতে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারগারে পাঠানো হবে।
শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার নারায়ণপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন আরিফ হোসেন হাওলাদার। সে ফেরাঙ্গিকান্দি গ্রামের মিন্টু হাওলাদারের ছেলে। স্থানীয় একটি কলেজের স্নাতক শ্রেণির ছাত্র। ফাঁদে ফেলে ছয় নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। গত ১৫ই অক্টোবর ছয় নারীকে ধর্ষণ দৃশ্যের ভিডিও ও ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মানুষের হাতে ছড়িয়ে পড়ে। অভিযোগ পেয়ে ১৯শে অক্টোবর ভেদরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ আরিফকে বহিষ্কার করে। বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় ১১ই নভেম্বর জেলা ছাত্রলীগ আরিফকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করে। গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হলে ভুক্তভোগী এক নারী তার বিরুদ্ধে ভেদরগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেন। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলাটি করা হয়।

More News from অন্যান্য

More News

Developed by: TechLoge

x